নীলনদের প্লাস্টিক দিয়ে পিরামিড, মিশরের নতুন 'আকর্ষণ'

গত ৬ তারিখ থেকেই মিশরের শার্ম-আল-শেইখে শুরু হয়েছে কপ-২৭ সম্মেলন। পরিবেশ ও জলবায়ু পরিবর্তন নিয়ে আলোচনা ও সমাধান খুঁজতে সামিল হয়েছেন ১৯০টি দেশের প্রতিনিধি। এবার এই আন্তর্জাতিক সম্মেলন চলাকালীনই নজর কাড়ল মিশরের আশ্চর্য এক দৃশ্য। পিরামিডের দেশ মিশরের রাজধানী কায়রোর ঠিক বাইরেই রাতারাতি গড়ে উঠল নতুন এক পিরামিড (Pyramid)। 

না, ফ্যারাওদের তৈরি গ্রেট পিরামিডের কোনো প্রতিকৃতি নয়। পাথর কিংবা কংক্রিট নয়, বরং প্লাস্টিক আবর্জনা দিয়েই তৈরি হয়েছে এই নব-নির্মিত পিরামিডটি। লক্ষ্য, পরিবেশ দূষণ সম্পর্কে সাধারণের মধ্যে সচেতনতা গড়ে তোলা। জিরো-ওয়েস্ট কোম্পানি ‘জিরো কো’ এবং ওয়াইন বিক্রেতা হিডেন সি-এর নেতৃত্বেই গড়ে তোলা হয়েছে এই পিরামিড। 

সবমিলিয়ে তিনতলা বাড়ির সমান উঁচু এই পিরামিড তৈরিতে ব্যবহৃত হয়েছে ২০ টন ওজনের প্লাস্টিক। এবং মজার বিষয় হল, এই সমস্ত প্লাস্টিক সংগ্রহ করা হয়েছে কেবলমাত্র নীল নদ (Nile River) থেকে। কিছুদিন আগেই সে-দেশের বৃহত্তম প্লাস্টিক অপসারণ কর্মসূচি আয়োজিত হয়েছিল নীল নদে। সংগৃহীত হয়েছিল প্রায় ১০ লক্ষ প্লাস্টিক বোতল এবং অন্যান্য আবর্জনা। সেই প্লাস্টিককে সংকুচিত করেই তৈরি করা হয়েছে পিরামিডের গঠনগত ব্লকগুলি। 

তবে এখানেই শেষ নয়। এই কর্মসূচিতে নীলনদে জমে থাকা বিয়োজন অযোগ্য আবর্জনার ১ শতাংশও অপসারণ সম্ভব হয়নি বলেই অভিমত পরিবেশকর্মীদের। তাই আগামী এক শতক ধরেই চলবে এই কর্মসূচি। প্রতিবছর ধাপে ধাপে নিষ্কাশন করা হবে প্লাস্টিক আবর্জনা। আর সেই লক্ষ্যেই, ১০ লক্ষ মার্কিন ডলারের গণ-তহবিল গড়ে তোলার চেষ্টা করছেন হিডেন সি ও ‘জিরো কো’। বলাইবাহুল্য, কপ-২৭ বৈঠক চলাকালীন ‘১০০ ইয়ার ক্লিনআপ’-খ্যাত এই উদ্যোগ বিশেষভাবে নজর কেড়েছে বৈঠকে অংশ নেওয়া বিভিন্ন দেশের প্রতিনিধিদের। এই ব্যতিক্রমী উদ্যোগের পর নীল নদের স্বাস্থ্য পুনরুদ্ধারের পথ আরও প্রশস্ত হবে, তাতে সন্দেহ নেই কোনো…

Powered by Froala Editor

More From Author See More

Latest News See More