পাঁচ টাকায় ভরপেট খাবার, গরিবদের পাশে দাঁড়াতে উদ্যোগ অনুপের

ভারতবর্ষের মতো তৃতীয় বিশ্বের দেশে প্রতিদিন খাবার জোটানো অনেক মানুষের কাছেই কঠিন এক লড়াই। ইউনাইটেড নেশনের তথ্য অনুযায়ী, দেশের ১৯৬ মিলিয়ন মানুষ অপুষ্টিতে ভোগেন। দু-বেলার দু-মুঠো খাবার জোটাতে হিমশিম খান দেশের বহু মানুষ। আর এঁদের কথা মাথায় রেখেই নতুন উদ্যোগ নেন অনুপ খান্না।

মাত্র পাঁচটাকা প্রতি প্লেটে প্রত্যেকদিন পাঁচশো লোককে খাওয়াচ্ছে অনুপ খান্নার ‘দাদি কী রসোই’। নয়ডার গঙ্গা শপিং কমপ্লেক্সে চালু করলেন এই সংস্থাটি চালু করেন অনুপবাবু। পাঁচটাকার বিনিময়ে ডাল, ভাত, রুটি, সবজি পাওয়া যায় এখানে। রোজ সকাল দশটা থেকে সাড়ে এগারোটা সতেরো নং সেক্টরে এবং বারোটা থেকে দুটো উনত্রিশ নং সেক্টরে এই সংস্থা খোলা থাকে।

এই সংস্থাটি খোলার পরিকল্পনা অনুপবাবুর মেয়ে সাক্ষী খান্নার মাথায়। তিরিশ হাজার টাকা মূলধন নিয়ে এই কাজ তাঁরা শুরু করেন। পরবর্তীতে বিভিন্ন ট্রাস্ট এঁদের কাজকে এগিয়ে নিয়ে যেতে সাহায্য করেন।

অনুপবাবুর কথায়, কম দামে সবজি কেনার জন্য পাইকারি বাজার থেকে কেনাকাটা করতে হয় তাঁদের। তবে, গরিবদের খিদে মেটানোর ইচ্ছে থেকেই এই উদ্যোগ হলেও, ‘দাদি কী রসোই’ বিনা মূল্যে কাউকে খাবার দেয় না। প্রত্যেকটি মানুষের আত্মসম্মানের জন্যই খাবারের মূল্য পাঁচ টাকা রাখা হয়েছে।

অনুপবাবুদের মত এমন মানুষ আছেন বলেই, এখনও বহু মানুষের নিয়মিত খাবার জুটছে, তাঁর এই প্রয়াসকে তাই সাধুবাদ না জানিয়ে পারা যায় না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here