একমাত্র বাঙালি শিশু বিজ্ঞানী হিসেবে আন্তর্জাতিক বিজ্ঞানমেলায় বীরভূমের অনিরুদ্ধ

বীরভূমের কয়থা উচ্চবিদ্যালয়ে যেন সাজো সাজো রব। আর কিছুদিনের মধ্যেই আমেরিকা পাড়ি দেবে সেখানকার ছাত্র অনিরুদ্ধ। এবছরের মাধ্যমিক পরীক্ষার্থী অনিরুদ্ধ দাস নিজের গবেষণা উপস্থাপনার ডাক পেয়েছে ইন্টারন্যাশানাল সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং ফেয়ার ২০২১ কমিটির তরফ থেকে। আগামী মে মাসেই মেলাতে উপস্থিত হবে অনিরুদ্ধ।

ছোটো থেকেই গ্রামে মানুষ হওয়া অনিরুদ্ধ বেড়ে উঠেছে প্রকৃতির মধ্যেই। তার মধ্যে আনন্দের মতোই আছে কিছু সমস্যাও। তেমনই একটি সমস্যা মশার অতিরিক্ত বংশবিস্তার। আজও এই সমস্যার কোনো উপযুক্ত  সমাধান আবিষ্কার হয়নি। তবে অনিরুদ্ধ হাজির করেছে একটি অভিনব পদ্ধতি। আর এই পদ্ধতিতে ব্যবহার করা হয়েছে আকাশমণি বা রবি ঠাকুরের স্মৃতিবিজড়িত সোনাঝুরি গাছের পাতা।

সোনাঝুড়ির নির্যাস দিয়ে কীভাবে মশার লার্ভা নিয়ন্ত্রণ করা যায়, সেটাই ছিল অনিরুদ্ধ-র গবেষণার বিষয়। আর এই গবেষণার জন্য পাশে পেয়েছেন স্কুলের শিক্ষক সৈয়দ ইমতিয়াজ আহমেদ এবং সহপাঠী রামিজ আকবরকেও। অবশেষে গতবছর শিশু বিজ্ঞান কংগ্রেসে তার প্রকল্পের কথা প্রকাশ করার মঞ্চ পায় অনিরুদ্ধ।

অনিরুদ্ধর এই প্রকল্প এখন ভারতের ১৯টি প্রথম সারির প্রকল্পের একটি। আর এবার আন্তর্জাতিক মঞ্চে জায়গা পেতে চলেছে সেই গবেষণা। ভারত থেকে আরও ২০ জন শিশু বিজ্ঞানী এই মেলায় অংশ নিতে চলেছে। তবে তার মধ্যে একমাত্র বাঙালি শিশু বিজ্ঞানী অনিরুদ্ধ। তার এই সাফল্য আগামীদিনে বিদ্যালয়স্তরে বিজ্ঞানশিক্ষার বুনিয়াদ আরও মজবুত করার অনুপ্রেরণা হয়ে থাকবে বলেই মনে করছেন অনেকে।

Powered by Froala Editor

More From Author See More

Latest News See More